হংমেং ওএস এর ট্রেডমার্ক রেজিস্ট্রেশন করলো হুয়াওয়ে

গুগলের এন্ড্রয়েড ব্যবহারের নিষেধাজ্ঞার পর থেকেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল যে হুয়াওয়ে তাদের নিজস্ব ওএস আনতে যাচ্ছে। অবশেষে তারা হংমেং নামক তাদের নতুন অপারেটিং সিস্টেম এর ট্রেডমার্ক রেজিস্ট্রেশন করলো।

গত সপ্তাহে চীনের ন্যাশনাল ইন্টেলেকচুয়াল প্রোপার্টি এডমিনিস্ট্রেশন হুয়াওয়ে কে তাদের নতুন হংমেং ওএস এর ট্রেডমার্ক রেজিস্ট্রেশনের আবেদন মঞ্জুর করে। এর মাধ্যমে হুয়াওয়ের নতুন ওএস এর নামের ব্যাপারে আরেক দফা নিশ্চয়তা পাওয়া গেলো। হুয়াওয়ে গত ছয় বছর ধরে “প্রজেক্ট জেড” নামক একটি গোপন প্রজেক্টে কাজ করছিলো। এই প্রজেক্টের লক্ষ্যই ছিল আমেরিকান প্রযুক্তিগুলোর বিকল্প হিসেবে নিজেদের প্রযুক্তি ডেভেলপ করা। তাদের হংমেং ওএস সেই প্রজেক্ট এরই অংশ ছিল। গুগল এর এই নিষেধাজ্ঞা হুট করে আসলেও হুয়াওয়ে অফিশিয়ালরা জানিয়েছেন যে তারা এ ধরনের পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুতই ছিলেন।

গুগল ইতিমধ্যে হুয়াওয়ের নিষেধাজ্ঞা ৩ মাসের জন্য স্থগিত করেছে। তবে এর স্থায়ী সমাধান হবে কি না সে বিষয়ে কেউই নিশ্চিত নয়। এ কারণে হুয়াওয়ে তাদের নতুন ওএস এ মাইগ্রেট কয়রা সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এ বছরেই তাদের নতুন ফোনগুলো হংমেং ওএস ইন্সটল করা অবস্থায় বাজারে আসবে।

যতদূর জানা গিয়েছে তাদের হংমেং ওএস এন্ড্রয়েড এর সব অ্যাপ সাপোর্ট করবে। তবে তাতে স্বাভাবিকভাবেই গুগল প্লে স্টোর থাকবে না। তাই তারা তাদের নতুন ওএস এর জন্য নতুন একটি অ্যাপ স্টোরও নিয়ে আসবে। আরেকটি ব্যাপার হলো তাদের নতুন ওএস শুধুমাত্র স্মার্টফোনের জন্যই নয় বরং পিসি সহ অসংখ্য ডিভাইসে ব্যবহার করা যাবে। মূলত তাদের ওএস টি ক্রস প্লাটফর্ম হবে। যেহেতু মাইক্রোসফট ও হুয়াওয়েকে তাদের উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে দিবে না তাই তারা হয়তো তাদের এই নতুন ওএস হুয়াওয়ে মেটবুক সিরিজের ল্যাপটপ গুলোতেও ব্যবহার করবে।

এখন এন্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ এর বিকল্প হিসেবে হংমেং গ্রাহকদের চাহিদা কতটুকু পূরণ করতে পারে সেটাই দেখার বিষয়।

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.