বিল্ট ইন একশন ক্যামেরা নিয়ে এলো মটোরোলা ওয়ান একশন

মটোরোলা আর সব কোম্পানিগুলোর মতো সব ধরনের গ্রাহকদের জন্য ফোন বাজারে আনে না। বরং তারা গত কয়েকবছর ধরে বাজেট মিডরেঞ্জ ফোনগুলোর উপর গুরুত্ব দিচ্ছে। ফিচারের দিক থেকে মটোরোলা ক্যামেরা ও ব্যাটারির দিকে গুরুত্ব দেয় যেন গ্রাহকেরা বাজেটের মাঝে সেরা মিডিয়া ডিভাইসটি পায়। তাদের এই স্ট্র্যাটেজিতে মটোরোলার কিছু ফোন বাজারে বেশ সাড়া ফেলেছে।

তেমনই এক মিডরেঞ্জ ফোন হলো মটোরোলা ওয়ান একশন। এটা মূলত তাদের কিছুদিন আগে মুক্তি পাওয়া মটোরোলা ওয়ান ভিশন এরই উত্তরসূরি। নামের মতোই ওয়ান একশনের সবচেয়ে বড় ফিচার হলো এর ১১৭ ডিগ্রী ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা যা গ্রাহকদেরকে একশন ক্যামেরার মতো সুবিধা দিবে।

মূলত একশন ক্যামেরাগুলোতে এরকম ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা যুক্ত থাকে যার ফলে ফ্রেমিং নিয়ে চিন্তা না করেই কোন একশন মোমেন্ট এর ভিডিও রেকর্ড করা যায়। সেই হিসেবে ফোনটিতে একটি একশন ক্যামেরাই যুক্ত আছে বলা যায়।

আরো অনেক ব্র্যান্ড নিজেদের ফোনে ওয়াইড এঙ্গেল ক্যামেরা যুক্ত করলেও মটোরোলার এই ওয়াইড এঙ্গেল লেন্সে ইআইএস রয়েছে যা ভিডিও করার ক্ষেত্রে বেশ কাজে দিবে।

আরেকটি মজার ব্যাপার হলো ফোনটিতে ওয়াইড এঙ্গেল সেন্সরটি ৯০ ডিগ্রী রোটেট করে রাখা হয়েছে। যার ফলে ফোন খাড়া করে ধরে রেখেই ল্যান্ডস্কেপ মোডে ভিডিও করা যাবে। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে ভিডিও করার সময় হাতে ভালো গ্রিপ পেতে ফিচারটি বেশ কাজে দেবে। সবমিলিয়ে অনেকেই বলছেন ফোনটি বাজেট একশন ক্যামগুলোর বিকল্প হতে যাচ্ছে।

ফোনটির আরেকটি ফিচার হলো এর ২১:৯ রেশিওর ডিসপ্লে। সাধারণত নতুন মুক্তিপাওয়া ফোনগুলো ১৯:৯ রেশিও ব্যবহার করে। তাই অনেকের কাছে এই ২১:৯ রেশিও একটু অস্বাভাবিক লাগতে পারে।

তবে বিভিন্ন মুভিতে ২১:৯ রেশিও ব্যবহৃত হওয়ায় এই ফোনটিতে ঐসব মুভি দেখার সময় কোন খালি জায়গা থাকবে না ডিসপ্লেতে। এর ফলে যারা মিডিয়া ডিভাইস চান তাদের জন্য পারফেক্ট হতে পারে ডিভাইসটি।

মটোরোলা ওয়ান একশন এর স্পেসিফিকেশন

ডিসপ্লেঃ ৬.৩ ইঞ্চি, ফুলএইচডি প্লাস, ২১ঃ৯ সিনেভিশন ডিসপ্লে।

চিপসেটঃ এক্সিনস ৯৬০৯

র‍্যামঃ  ৪ জিবি

স্টোরেজঃ ১২৮ জিবি (হাইব্রিড স্লট মেমোরি কার্ড সাপোর্ট)

ক্যামেরাঃ ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা, এলইডি ফ্ল্যাশ

  • ১২ মেগাপিক্সেল এফ ১.৮ মেইন সেন্সর
  • ১৬ মেগাপিক্সেল ১১৭ ডিগ্রী ওয়াইড এঙ্গেল লেন্স (ইআইএস)
  • ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সর

১২ মেগাপিক্সেল পাঞ্চহোল সেলফি ক্যামেরা

অন্যান্যঃ টাইপ সি ইউএসবি, এনএফসি, স্প্ল্যাশ রেজিস্ট্যান্ট

ব্যাটারিঃ ৩৫০০ মিলিএম্প, ১৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং

ওএসঃ এন্ড্রয়েড ৯.০ পাই

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.