এক্সহেল্পার ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত ৪৫হাজার এন্ড্রয়েড স্মার্টফোন

গত মার্চে চিন্হিত হওয়া এক্সহেল্পার নামে এক ধরনের নতুন ম্যালওয়্যার প্রতিদিন গড়ে ১৩১ অর্থাৎ মাসে ২৪০০ নতুন এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনকে আক্রান্ত করছে। এই ম্যালওয়্যারের প্রধান ভিক্টিমগণ প্রধানত ভারত, যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়া কেন্দ্রিক।

গুগল প্লে স্টোরে এই এপ নেই, অর্থাৎ বিকল্প এপস্টোরসমূহের বদৌলতে স্মার্টফোনে ডুকে পড়ছে এই ম্যালওয়্যার। এক্সহেল্পার ইনস্টলের পরপরই রিমোট সার্ভার ফোনে কিছু কোড ডাউনলোড করে। এসব কোডের মাধ্যমে ফোনে এড দেখায় এই এপ। এর মাধ্যমে ভালো অংকের রেভিনিউ ও পাচ্ছে এই এপ ডেভলপারগণ। এসব এড মূলত প্লেস্টোরের বিভিন্ন এপ কেন্দ্রিক। আপাতদৃষ্টিতে শুনতে সাধারণ মনে হলেও এই ম্যালওয়্যারের কাজ এখানেই শেষ নয়।

ইনস্টলের পর এটি হোমস্ক্রিন থেকে এর আইকন আপনাআপনি মুছে ফেলে, যাতে ব্যবহারকারীগণ এপটি ডিলেট করতে না পারে। তবে এখানেও শেষ নয়। অনেকেই মনে করতে পারেন যে সেটিংস এপের এপ ম্যানেজারে গিয়ে এই এপ ডিলেট করা যাবে। যদিওবা এই পদ্ধতিতে এপটি আনইন্সটল করা যায়, তবে কিছু সময় পর এপটি আবার ফোনে ফিরে আসে।

ডেভলপারগণ যাতে এক্সহেল্পারের কোনো সমাধান বের করতে না পারেন, তার জন্য এই এপ কিছু সময় পরপরই স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট হয়ে যায়। এই ম্যালওয়্যার এপের এখনো কোনো সমাধান পাওয়া যায়নি।

২০১৩ সালে ক্যাসপারস্কি ল্যাবের গবেষণাকারীগণ এইরকম একধরনের ম্যালওয়্যারের সন্ধান পান, যা এন্টিভাইরাসকে বোকা বানিয়ে ডিভাইসে থেকে যায়। বছর দুয়েক পর এই ধরনের ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হন মোট ২০০০০ ব্যবহারকারী।

এই ম্যালওয়্যারের কোড জনপ্রিয় এপগুলোর মোডের ভার্সনে লুকায়িত ছিল বলে পরে জানা যায়। এই ধরনের ম্যালওয়্যারের কবল থেকে রক্ষা পেতে প্লেস্টোরের বাইরে থেকে এপ ডাউনলোড করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন গবেষণাকারীগণ।

সূত্র : Symantec

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.