টিকটক অ্যাপ সম্পর্কে অবাক করা ১০ টি তথ্য

২০১৭ সালে জনপ্রিয় শর্ট ভিডিও তৈরীর অ্যাপ মিউজিক্যালি কে কিনে নেয় চীনা প্রতিষ্ঠান বাইটডান্স। সে সাথে অ্যাপটির নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় টিকটক। মূলত তরুণদের কাছে অল্প সময়ের মধ্যেই বিপুল পরিমাণ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে অ্যাপটি।

চলুন জেনে নিই, টিকটক অ্যাপ সম্পর্কে অবাক করা ১০ টি তথ্য।  

১. বিশ্বব্যাপী সক্রিয় টিকটক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫০০ মিলিয়ন, যা টুইটার বা স্ন্যাপচ্যাট এর তুলনায় বেশি। 

২. ২০১৯ সালের কোয়ার্টার ১ অনুযায়ী টিকটক তৃতীয় সর্বাধিক ডাউনলোডকৃত অ্যাপ ছিল। এই সময়ে ১৮৮ মিলিয়িন নতুন ব্যবহারকারী টিকটক অ্যাপটি ডাউনলোড করে। 

৩. ২০১৯ সালের কোয়ার্টার ১ এ ৩৩ মিলিয়ন বারের বেশি ডাউনলোড সহ অ্যাপল এর আইওএস অ্যাপ স্টোরের সর্বোচ্চ ডাউনলোডকৃত অ্যাপ ছিল টিকটক।

৪. টিকটক এর ৪১ শতাংশ ব্যবহারকারী ১৬ থেকে ২৪ বছর বয়সসীমার মধ্যে। 

৫. টিকটক এর ৫৫.৬ শতাংশ ব্যবহারকারী পুরুষ এবং ৪৪.৪ শতাংশ ব্যবহারকারী মহিলা।

৬. ব্যবহারকারীগণ প্রতিদিন গড়ে ৫২ মিনিট টিকটক এ ব্যয় করেন।

৭. টিকটক ১৫৫ টি দেশে এবং ৭৫  টি ভাষায় সাপোর্ট করে। 

৮. টিকটক ব্যবহারকারীদের মধ্যে ৯০ শতাংশ ব্যবহারকারীই দিনে একাধিকবার অ্যাপটি ব্যবহার করেন। 

৯. ১৮ মাসেরও কম সময়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে টিকটক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৫.৫ গুণ বেড়েছে।

১০. প্রতিদিন গড়ে ১ বিলিয়ন ভিডিও দেখা হয় টিকটক এ।

উল্লেখিত ১০ টি তথ্যের মধ্যে কোন ব্যাপারটি আপনাকে সবচেয়ে বেশি অবাক করেছে? কমেন্ট করে জানিয়ে দিন। 

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

আমাদের প্রশ্ন করুন!