স্বল্প বাজেটে কোয়াড ক্যামেরার স্মার্টফোন রেডমি ৯

বাজেট স্মার্টফোনের বাজারে নতুন ভাবে সাড় ফেলেছে শাওমির নতুন ফোন রেডমি ৯। মাত্র ১৫ হাজার টাকার মধ্যে ফোনটিতে দারুণ পারফরমেন্সের সঙ্গে ব্যবহারকারী পাবেন অনেক নতুন ফিচার। আর রেডমি মডেলগুলোর মধ্যে প্রথমবারের মতো স্মার্টফোনটিতে দেয়া হয়েছে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ। কম বাজেটের মধ্যে কেমন হবে রেডমি ৯ চলুন দেখে নিই।

ডিজাইন

ফোনটি ডিজাইন অনেকটা সাদামাটা বলা যায়। এর আগের রেডমি ফোনগুলোর মতই। ফোনটির পিছনে রয়েছে চিক গ্রাডিয়েন্ট কালার ডিজাইন এবং অ্যান্টি-ফিঙ্গারপ্রিন্ট রিপেল টেক্সাচ। রিয়ার ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরটি বিশেষ ডিজাইনে ক্যামেরার পাশে দেওয়া হয়েছে। সাদামাটা হলেও এর পিছনে ম্যাট ফিনিশিং দেখতে চমৎকার একটা লুক দেবে। পুরো প্লাস্টিক বডির ফোনটি হাতে ধরে রাখতে বেশ আরামদায়ক মনে হয়েছে। ডিভাইস কিছুটা বড় হলেও স্লিম থাকায় তা সহজেই হাতে ধরে রাখা যায়।

রেডমি ৯ স্মার্টফোনটি আগে আনা রেডমির অন্যান্য ফোনের তুলনায় কিছুটা বড়। এতে থাকছে ৬.৫৩ ইঞ্চি এফএইচডি প্লাস ডট ড্রপ ডিসপ্লে। ডিসপ্লের ডেনসিটি ৩৯৫ পিপিআই, স্ক্রিন টু বডি রেশিও ৮২ শতাংশ এবং ডিসপ্লের কালার কনট্রাস রেশিও ১৫০০:১ (টিওয়াইপি)। ডিসপ্লেতে রয়েছে টিইউভি রাইনল্যান্ড লো ব্লু লাইট সার্টিফিকেশন। এজন্য অ্যামাজন কিংবা নেটফ্লিক্সে যারা মুভি দেখতে চান তাদের ব্রাইটনেস নিয়ে কোনো ধরনের দুশ্চিন্তা করতে হবে না। ভালো ভিজ্যুয়াল এক্সপেরিয়েন্সের জন্য ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ডিটেইলস ফিঙ্গারট্রিপ রয়েছে এতে। তাই ব্যবহারের সময় মনে হয়নি এর ব্রাইটনেস কম। রোদে ব্যবহারের ক্ষেত্রে ডিসপ্লের ব্রাইটনেস একটা বাড়িয়ে নিতে হবে।

ফোনটির বামের দিকে দেয়া হয়েছে সিমকার্ড ট্রে। এখানে এক সঙ্গে দুটি ফোরজি সিম এবং একই সঙ্গে একটি ডেডিকেটেড মেমোরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে। ডান সাইডে রয়েছে ভলিউম রকার এবং তার নিচে পাওয়ার বাটন। এর পজিশনও কমর্ফোটেবল। ফোনের উপরের দিকে রয়েছে মাইক, আর শাওমির চিরচেনা আইআর ব্লাস্টার। নিচের দিকে ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাক, ইউএসবি টাইপ সি পোর্ট এবং স্পিকার। স্পিকার কোয়ালিটি বেশ ভালো। ফুল সাউন্ডে বেইজ কিছুটা কম মনে হলেও সাউন্ড বেশ লাউড।

ক্যামেরা

রেডমি ৯ ডিভাইসটি এই রেঞ্জের মধ্যে শাওমির প্রথম কোয়াড ক্যামেরার ফোন। এর আগে রেডমি ৮ বা ৭ কোনো ফোনেই কোয়াড ক্যামেরা ছিল না। সেই হিসেবে এটা একটা নতুন সংযোজন। ফোনটির পিছনে রয়েছে ১৩ মেগাপিক্সেলের প্রধান ক্যামেরা। এফ/২.২ অ্যাপারচারের ১৩ মেগাপিক্সেল ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা ছাড়াও রয়েছে একটি ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা ১১৮ডিগ্রি এফওভি, রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরা এবং ২ মেগাপিক্সেল ডেফথ সেন্সর। ক্যামেরায় প্রিমিয়াম ফিল দিতে ডিভাইসটি রয়েছে ক্যালিডোস্কোপ এবং পাম শাটার ফিচার।

এছাড়াও সেলফির জন্য সামনে রয়েছে একটি ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এই সামনে এবং পিছনে উভয় ক্যামেরাতেই ১০৮০ পিক্সেল রেজুলেশনের ছবি তোলা সম্ভব। এছাড়াও এটি দিয়ে ৩০ এফপিএস ভিডিও ধারণ করা যাবে। আল্ট্রা ওয়াইড ক্যামেরায় ছবির মান বেশ ভালো পাওয়া গেছে। তবে কিছুক্ষেত্রে পোর্ট্রেইট মোডে ছবি তুলতে একটু সমস্যায় পড়তে হয়েছে। দিনের আলো এবং রাতের ছবি তোলার ক্ষেত্রে ভালো অভিজ্ঞতা পাওয়া গেছে।

পারফরম্যান্স

শাওমির রেডমি ৯ ফোনটি চলবে অ্যান্ড্রয়েড ১০ অপারেটিং সিস্টেমে। যাতে থাকছে শাওমির কাস্টমাইজড এমআইইউআই ১১। ডিভাইসটিতে দেওয়া হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০ প্রসেসর। ১২ ন্যানোমিটার প্রসেসিং টেকনোলজির অক্টা-কোর সিপিইউ। এতে আরও রয়েছে আপ টু ২.০ গিগাহার্জ প্রসেসিং পাওয়ার। যা এর পূর্বসূরী অপেক্ষা ২০৭ শতাংশ বেশি পারফরম্যান্স দেবে। এতে আছে শক্তিশালী ৫০২০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এর ফলে রেডমি ৯ ডিভাইসটি আপনার প্রতিদিনের কাজে, ও গেইম খেলার সময় অনেক বেশি পাওয়ার ব্যকআপ দেবে। এমনকি ফোনটিতে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি রয়েছে, ফলে গেইম খেলতে খেলতেই চাইলে অল্প সময়ের মধ্যেই ডিভাইসটি চার্জ করে নিতে পারবেন।

ফোনটিতে গেইমিং করতে গিয়ে হালকা গরম পাওয়া গেছে। যা এই বাজেটের ফোনের ক্ষেত্রে স্বাভাবিক ঘটনা। তবে এই প্রসেসিং পাওয়ারে অন্য একই বাজেটের ফোনের চেয়ে এর গেইংমিং মান অনেক ভালো বলা যায়। পাবজির মতো গেইম খেলা একটা কষ্টকর হতে পারে। সেক্ষেত্রে ফ্রেম ড্রপের মতো ঘটনা পাওয়া হতে পারে। হাই এন্ড গেইম ছাড়া অন্য গেইমিংয়ে ততটা সমস্যা পাওয়া যায়নি।

ব্যাটারি

ব্যাকআপ নিয়ে কথা বলা বোধহয় বেশি হয়ে যাবে। কেননা ফোনটিতে রয়েছে ৫০২০ এমএএইচ ব্যাটারি। সেই হিসাবে স্বাভাবিকভাবেই এটি বেশ ভালো ব্যাকআপ দেবে। রয়েছে ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং। ফলে একবার ফুল চার্জে রেগুলোর ব্যবহারে পৌনে দুই বা দুইদিন ব্যবহার করতে পারবেন অনায়াসে। ফোনের বক্সে ১০ ওয়াটের চার্জার থাকছে। ফোনটি ফুল চার্জ হতে আড়াই ঘণ্টার মতো সময় নেয়। এই সময়টা আর একটু কম হলে আরও বেটার হতো।

 আরও যা রয়েছে

ফোনটি ফোরজি সাপোর্ট করে। রয়েছে ব্লুটুথ ৫, আইআর ব্লাস্টার, ক্যামেরায় অসংখ্য ফিচার। ওয়াইফাই, ফিঙ্গারপ্রিন্ট ও ফেইস আনলক, ওয়্যারলেস এফএম, ইনফ্রারেড, ইউএসবি টাইপ সিসহ অন্যান্য নানা ফিচার।

দাম

রেডমি ৯ বাংলাদেশে তিনটি কালার ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে। এর একটি কার্বন গ্রে, ওসান গ্রিন এবং সানসেট পার্পেল। এটি আসছে ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজে। দাম ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা।

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.