স্মার্টফোন ক্যামেরার যেসকল বিষয় সম্পর্কে আপনার জানা উচিত

ছবি তুলতে ভালোবাসেনা, এমন মানুষ হয়ত খুজে পাওয়া যাবেনা। হাতের কাছে থাকা স্মার্টফোনের বদৌলতে আমরা সবাই সেই শখ পূরণ করে থাকি। তবে স্মার্টফোনের ক্যামেরা সম্পর্কিত বিভিন্ন ব্যাপার, যেমন – মেগাপিক্সেল, আইএসও, সেন্সর, ম্যাক্রো এসব এর কথা আমরা হরহামেশা শুনে থাকলেও এগুলোর অর্থ হয়ত জানিনা। আজ আমরা জেনে নিবো, স্মার্টফোন ক্যামেরা সম্পর্কিত এমন ১২টি বিষয় সম্পর্কে। 

মেগাপিক্সেল

স্মার্টফোনের ক্যামেরার কথা বলতে গেলেই যে শব্দটি প্রথমে চলে আসে, সেটি হল মেগাপিক্সেল। বলা হয়, মেগাপিক্সেল যত বেশি হয়, ফোনের ক্যামেরাও তত ভালো হয়। ক্যামেরায় ধারণকৃত ছবি পিক্সেল নামের ক্ষুদ্র ইউনিট দ্বারা তৈরি। অর্থাৎ, এক মেগাপিক্সেল মিলিয়ন পিক্সেল এর সমান। সেই অনুসারে ক্যামেরা যত বেশি মেগাপিক্সেল, তার দ্বারা তোলা ছবির পিক্সেল তত বেশি। তবে মেগাপিক্সেল বেশি হলেই যে ছবি দেখতে ভালো হবে, তার কোনো গ্যারান্টি নেই। একটি ছবি তোলার পর চূড়ান্ত ফলাফল ছবির পোস্ট প্রসেসিং এর উপর অনেকাংশেই নির্ভর করে।

এপার্চার

এপার্চার হল ক্যামেরার একটি গর্ত। পিউপিল যেমন চোখে আলোর পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে, এপার্চার ও একইভাবে ক্যামেরাতে আলো প্রবেশের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করে। এফ/১.৫, এফ/২.৪ ইত্যাদি মানে উপস্থাপন করা হয় এপার্চারকে। এপার্চার যত কম হবে, ক্যামেরা কম আলোতে তত বেশি ভালো ছবি তুলতে পারবে।

সেন্সর

লেন্স খোলার পর যখন আলো আসে তখনই কোনো দৃশ্যের প্রতিবিম্ব সেন্সরে তৈরী হয়। সেন্সর এর মান অবশ্যই তোলা ছবির গুণগত মানকে নিয়ন্ত্রণ করে। সেস্নর যত বড় হবে, ছবিতে নয়েজ তত কম আসবে।

শাটার স্পিড

শাটার স্পিডকে এক্সপোজার টাইম ও বলা হয়। সেন্সরে আলো প্রবেশ করার জন্য যেসময় পর্যন্ত শাটার খোলা থাকে, সেসময়কে শাটার স্পিড বলা হয়। অর্থাৎ চলমান কোনো বিষয় ক্যাপচার করতে দ্রুত শাটার স্পিড এর প্রয়োজন। 

ডেপথ অফ ফিল্ড / বোকেহ

ডেপথ অফ ফিল্ড একটি ছবির সেই অংশ যা স্পষ্টত দৃশ্যমান। ছবি তোলার সময় মূল বিষয়কে সামনে রেখে ব্যাকগ্রাউন্ড ঝাপসা দেখানোর এই প্রবণতাকে বোকেহ নামেও অবিহিত করা হয়। যেহেতু স্মার্টফোনগুলো সাধারণ ক্যামেরা এর ছেয়ে অনেক ছোট লেন্সযুক্ত ক্যামেরা ব্যবহার করে, তাই ছবিতে এই ডেপথ অফ ফিল্ড কিংবা বোকেহ ইফেক্ট আনার জন্য আলাদা ক্যামেরা সেন্সর ব্যবহার করা হয়। 

আইএসও

ক্যামেরা সেন্সর আলোর প্রতি কতটা সংবেদনশীল, তা বোঝাতে আইএসও এর ব্যবহার করা হয়। আইএসও এর ক্ষেত্রে একটি সার্বজনীন নিয়ম রয়েছে, যা হল – আলো যত কম হবে, ভালো ছবি পেতে আইএসও সেই অনুসারে তত বাড়াতে হবে। ফোনের ক্যামেরাগুলোতে একটি নির্দিষ্ট সীমা পর্যন্ত আইওএসও পরিবর্তনের সু্যোগ থাকে।

হোয়াইট ব্যালেন্স

ক্যামেরা ছবির কালারকে কিভাবে নিয়ন্ত্রণ করে, এরই আক্ষরিক রুপ হল হোয়াইট ব্যালেন্স। মাঝেমধ্যে ছবি স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলদেটে কিংবা লালচে দেখায়, যার কারণ ভূল হোয়াইট ব্যালেন্স সেটিংস। 

অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলিজেশন

কার্যকরী লেন্স এলিমেন্ট এবং জাইরোস্কোপ সেন্সর ব্যবহার করে ছবি তোলার সময় ক্যামেরার নড়াচড়া কমানো হয়, যা অপেক্ষাকৃত ভালো ছবি তুলতে সাহায্য করে। এই ফিচারকে OIS বা Optical Image Stabilization বলে। ভিডিও রেকর্ডিং এর ক্ষেত্রে এটি সবচেয়ে বেশি উপযোগী এবং দরকারী ফিচার। 

ক্যামেরা জুম

জুম কি – সেটা কারোই অজানা নয়। ফোনের লেন্সে বিদ্যমান জুম লেন্স ব্যবহার করে ছবি তোলার সময় যে জুম করা হয়, তাই অপটিক্যাল জুম। অপটিক্যাল জুম ব্যবহার করে তোলা ছবির ক্ষেত্রে ছবির ডিটেইলস নষ্ট হয়না। ফোনের সফটওয়্যার ব্যবহার করে ছবি তোলার সময় যে জুম করা হয় তা ডিজিটাল জুম নামে পরিচিত। ডিজিটাল জুম ব্যবহার করে তোলা ছবি, জুম এর ব্যস্তানুপাতিক হারে ছবির কোয়ালিটি হ্রাস করে। 

এইডিআর

HDR বা High Dynamic Ranger, এর দ্বারা ছবিতে ডায়নামিক রেঞ্জ অর্থাৎ আলো অন্ধকারের উপস্থিতি পরিবর্তনের মাধ্যমে অধিকতর সুন্দর ছবি পাওয়া সম্ভব। সাধারণত এইচডিআর মোডে কয়েকটি ছবিকে একত্রে করে একটি ভালো ফলাফল প্রদান করা হয়। বর্তমানে সকল স্মার্টফোনের ক্যামেরা এ্যাপ এ এইচডিআর মোড পাওয়া যায়।

আল্ট্রা-ওয়াইড

ক্যামেরার ফোকাল দূরত্ব কমিয়ে বা কম ফোকাল দূরত্বের ক্যামেরা লেন্স ব্যবহার করে অপেক্ষাকৃত উন্মুত দিগন্তের ছবি তোলা হয়। এসব ছবি তুলতে যে ক্যামেরা ফিচার ব্যবহার করা হয়, তা আল্ট্রা-ওয়াইড নামে পরিচিত।

ম্যাক্রো

কোনো বিষয়ের একদম কাছ থেকে ছবি নেওয়ার জন্য যে ক্যামেরা মোড ব্যবহার করা হয়, তাই ম্যাক্রো। একটি মুদ্রার কয়েক সেন্টিমিটার দূরত্ব থেকে এটির ছবি তোলা, কিংবা কোনো গাছের পাতায় বসা একটি কিট এর ছবি তোলা – এসব ক্ষেত্রে ম্যাক্রো লেন্স বা মোড ব্যবহৃত হয়।

 

উল্লিখিত স্মার্টফোন ক্যামেরার কোন অংশটি আপনাকে সবচেয়ে বেশি মুগ্ধ করেছে? কমেন্টে জানিয়ে দিন আমাদেরকে। 

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.