২০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে শাওমি ও পোকোর যতো ফোন

গ্লোবাল টেকনোলজি লিডার শাওমি দেশের মানুষের ক্রয় ক্ষমতাকে মাথায় রেখে ও সব শ্রেণিপেশার মানুষকে প্রযুক্তি ব্যবহারের সুফল দিতে বািজেটের মধ্যে দেশে বেশ কিছু স্মার্টফোন এনেছে।

বিশেষ করে যারা করোনাভাইরাস মহামারি ও ঈদকে সামনে রেখে মধ্যম বাজেটের স্মার্টফোন কিনতে চান তাদের জন্য আদর্শ হতে পারে শাওমির হ্যান্ডসেট। বিশেষ করে যারা ২০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে ফোন কিনতে চান তাদের জন্য উন্নত কনফিগারেশেনে শাওমি ও পোকোর রয়েছেবেশ কয়েকটি মডেলের ফোন।

চলুন জেনে নিই বাজারে থাকা ২০ হাজার টাকার মধ্যে শাওমি ও পোকোর স্মার্টফোন সম্পর্কে।

রেডমি নোট ৯
বাজেটের মধ্যে ফটোগ্রাফি প্রাধান্য পেয়েছে রেডমি নোট ৯ এ। কোয়াড ক্যামেরা সেটাপ এর ফোনটিতে রয়েছে ৪৮ মেগাপিক্সেল মেইন ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেল এর অাল্ট্রা ওয়াইড লেন্স, ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেলের ডেপথ সেন্সর। এ ছাড়া ফোনের সামনে ৬.৫৩ ইঞ্চির হোল-পাঞ্চ ডিসপ্লেতে থাকছে ১৩ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা।

নোট ৯ এর ৫০২০ এমএএইচের বিশাল ব্যাটারিকে চার্জ করতে বক্সে দেয়া রয়েছে ২২ ওয়াট এর ফাস্ট চার্জার। ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৫ প্রসেসর।
ফোনটির দুটি সংস্করণ দেশে পাওয়া যাচ্ছে। ৪+৬৪ জিবির দাম ১৮ হাজার ৯৯০ টাকা এবং ৪+১২৮ জিবি ১৯ হাজার ৯৯৯ টাকা।

রেডমি ৯
রেডমি ৯ স্মার্টফোনে বড় আকারের ৬.৫৩ ইঞ্চি এফএইচডি প্লাস ডট ড্রপ ডিসপ্লে রয়েছে। সুরক্ষার জন্য ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে টিইউভি রাইনল্যান্ড ব্লু লাইট সার্টিফিকেশন এবং কর্নিং গরিলা গ্লাস প্রযুক্তি। কোয়াড ক্যামেরার ফোনটিতে রয়েছে একটি ১৩ মেগাপিক্সেল ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা-ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা, ১১৮ডিগ্রি এফওভি; ৫ ম্যাক্রো ও ২ মেগাপিক্সেল ডেফথ সেন্সর। সামনে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।

মিডিয়াটেক হেলিও জি৮০ এসওসি প্রসেসরের ফোনটিতে আছে শক্তিশালী ৫০২০ এমএএইচের ব্যাটারি। ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি রয়েছে, ফলে গেইম খেলতে খেলতেই চাইলে অল্প সময়ের মধ্যেই চার্জ করে নিতে পারবেন ডিভাইসটি। এ ছাড়া আছে ৩.৫ মিলি হেডফোন জ্যাক, আইআর ব্লাস্টার, ডুয়েল সিমের সঙ্গে আলাদা মাইক্রো এসডি কার্ড সাপোর্ট সুবিধা। ৪+৬৪ জিবি সংস্করণের দাম ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ৩+৩২ জিবির দাম ১৩ হাজার ৯৯৯ টাকা।

রেডমি ৯ পাওয়ার

রেডমি ৯ পাওয়ার ফোনে রয়েছে অঁরা পাওয়ার ডিজাইনের ৬.৫৩ ইঞ্চির ফুল এইচডিপ্লাস ডিসপ্লে। সুরক্ষার জন্য কর্নিং গরিলা গ্লাস, নিরাপত্তার জন্য ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এবং এআই ফেইস আনলক। ডুয়েল স্ট্যান্ডবাই ফোরজি সিম সুবিধা। আছে ৩.৫ মিমি মাইক্রোফোন জ্যাক।

ডিভাইসটিতে আছে ৪৮ মেগাপিক্সেলের কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ। যার প্রাথমিক ক্যামেরা ৪৮ মেগাপিক্সেল, একটি ৮ মেগাপিক্সেলের আলট্রা ওয়াইড, ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ও একটি ২ মেগাপিক্সেলের ডেফথ সেন্সর রয়েছে। রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা।

বড় মাপের ৬০০০ এমএএইচ ব্যাটারির সঙ্গে আছে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং। ডিভাইসটিতে আছে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৬৬২ চিপসেট। গেইমিংয়ের জন্য রয়েছে অ্যাড্রেনো ৬১০ এবং ভিভিড গ্রাফিক। ফোনটির ৪+৬৪ জিবির দাম ১৫ হাজার ৯৯৯ টাকা, ৪+১২৮ জিবির দাম ১৭ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ৬+১২৮জিবি ১৮ হাজার ৯৯৯ টাকা।

রেডমি ৯এ

স্মার্টফোনটিতে আছে ৬.৫৩ ইঞ্চির ডট ড্রপ ডিসপ্লে। ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার শক্তিশালী ব্যাটারি। মিডিয়াটেক হেলিও জি২৫ অক্টা-কোর গেমিং চিপসেট। এআই-অপ্টিমাইজড ১৩ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা। ২+৩২ জিবি স্টোরেজের ফোনটির দাম ৯ হাজার ৯৯৯ টাকা।

পোকোর যেসব ফোন নিতে পারেন

পোকো এম২

মিডিয়াটেকের গেমিং প্রসেসর, হেলিও জি৮০ থাকছে পোকো এম২ স্মার্টফোনে। ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারির সঙ্গে আছে ১৮ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সাপোর্ট। ১৩ মেগাপিক্সেলের কোয়াড ক্যামেরা। সঙ্গে সামনে ৮ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ৬.৫৩ ইঞ্চির ফুল এইচডি+ ডিসপ্লে।
ফোনটির ৬+৬৪ জিবি ভ্যারিয়েন্টের দাম ১৫ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ৬+১২৮ জিবির দাম ১৬ হাজার ৯৯৯ টাকা।

পোকো সি৩

পোকো সি৩ ফোনে রয়েছে ৬.৫৩ইঞ্চির এইচডি+ ডিসপ্লে। পিছনে ট্রিপল ক্যামেরা সেটাপ। যার একটি ১৩ মেগাপিক্সেল মেইন ক্যামেরার সাথে ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ও ২ মেগাপিক্সেলের একটি ডেপথ সেন্সর রয়েছে। ফোনের সামনে থাকছে ৫ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। পোকো সি৩ তে ব্যবহার করা হয়েছে মিডিয়াটেকের হেলিও জি৩৫ প্রসেসর। ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটরির ফোনটি দেশে পাওয়া যাচ্ছে ৩+৩২ জিবি ১১ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ৪+৬৪ জিবি ১২ হাজার ৯৯৯ টাকা।

পোকো এম৩

ফোনটিতে রয়েছে ৬.৫৩ ইঞ্চির ফুল এইচডিপ্লাস ডটড্রপ ডিসপ্লে। ডিসপ্লেকে সুরক্ষা দিতে রয়েছে কর্নিং গরিলা গ্লাস ৩ প্রযুক্তি। পিছনে রয়েছে অ্যান্টি ফিঙ্গারপ্রিন্ট টেক্সাচরড। আনলক করতে ডিভাইসটির সাইডে ফিঙ্গরপ্রিন্ট সেন্সর দেয়া হয়েছে।

ডিভাইসটিতে ৪৮ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরাসহ রয়েছে ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ও ২ মেগাপিক্সেলের ডেফথ সেন্সর। চমৎকার সেলফি নিতে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। ডিভাইসটিতে কোয়ালকমের স্ন্যাপড্রাগন ৬৬২ চিপসেটের সঙ্গে রয়েছে অ্যাড্রেনো ৬১০ জিপিইউ।

৬০০০ এমএএইচ ব্যাটারির ফোনটিতে দেয়া হয়েছে ১৮ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং। বক্সে ২২.৫ ওয়াটের একটি চার্জার থাকছে। ফোনটি রিভার্স ওয়্যার চার্জিংও সাপোর্ট করে। ফোনটি ৪+৬৪ জিবির দাম ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ৪+১২৮ জিবির দাম ১৬ হাজার ৪৯৯ টাকা।

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

আমাদের প্রশ্ন করুন!