কোয়ালকম নিয়ে এলো মিডরেঞ্জ গেমিং চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি

একসময় গেমিং শুধু হাই এন্ড পিসি কিংবা কনসোলে সীমাবদ্ধ থাকলেও এখন মানুষ নিজের পকেটের মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করেই সেরা সব গেইম এর স্বাদ নিতে পারছে। এমনকি সেগুলোর কোয়ালিটি কিছু কিছু ক্ষেত্রে পিসি কিংবা কনসোল এর মতোই।

সেই গেমিং এক্সপেরিয়েন্স কে মোবাইল ডিভাইসে আরো উন্নত করতে সব কোম্পানিই কাজ করে যাচ্ছে। এমনকি বর্তমানে স্মার্টফোন কেনার ক্ষেত্রে গেমিং পারফর্মেন্স অন্যতম একটি মানদণ্ড হয়ে দাঁড়িয়েছে।

স্মার্টফোন এর গেমিং এ সিস্টেম অন চিপ বা চিপ্সেট এর ভূমিকা খুবই গুরুত্বপূর্ন। সিপিইউ ও জিপিইউ এর সমন্ময়ে গঠিত এই চিপসেট। বর্তমানে বাজারের সব গেমিং ফোনই কোয়ালকম এর স্ন্যাপড্রাগন এর ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসর ব্যবহার করে তৈরী।

ফ্ল্যাগশিপ চিপ্সেটগুলো সিপিইউ ও জিপিইউ দুই দিক থেকেই শক্তিশালী। তবে ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসরগুলো একই সাথে দামী এবং বেশিরভাগ সময় দামি ফোনেই ব্যবহার করা হয়। তাই যারা মিড রেঞ্জ ফোনের ক্রেতা তারা তাদের ফোনে সেরা গেমিং পারফর্মেন্স পায় না।

এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে কোয়ালকম তাদের চিপ্সেট লাইনআপে স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি নামক নতুন এক প্রসেসর উন্মোচন করেছে। এটি মূলত একটি মিডরেঞ্জ চিপসেট। তবে এটি গেমিং এর জন্য বিশেষভাবে ডিজাইন করা।

৮ ন্যানোমিটার টেকনোলজির এই চিপসেটে আছে ওভারক্লক করা এডরিনো ৬১৮ জিপিইউ। এর ফলে সাধারণ স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০ এর চেয়ে এর গেমিং পারফর্মেন্স আরো ভালো হবে।

অনেকে কম খরচে এমন ফোন চান যেটা গেমিং এ ভালো পারফর্মেন্স দিবে তবে অন্যান্য ফ্ল্যাগশিপ ফিচার না থাকলেও চলবে। আশা করা যায় কম খরচে গেমিং ফোন কিনতে চান এমন গ্রাহকদের জন্য বেশ সুবিধাজনক হবে স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি প্রসেসরের ফোনগুলো। আশা করা যায় খুব শীঘ্রই এই চিপসেট ব্যবহৃত ফোনগুলো বাজারে দেখা যাবে।

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

আমাদের প্রশ্ন করুন!