৫জি টেকনোলজি নিতে হুয়াওয়ের দ্বারস্থ অ্যাপল?

কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স ও মোবাইল ফোনের পাশাপাশি কোর নেটওয়ার্কিং যন্ত্রপাতির দিক থেকেও হুয়াওয়ে যথেষ্ট এগিয়ে আছে। ৫জি প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণা করছে এমন দুই একটা কোম্পানির মধ্যে হুয়াওয়ে অন্যতম। ইতিমধ্যে বিভিন্ন দেশে পঞ্চম প্রজন্মের টেকনোলজি নিয়ে পরীক্ষা চালিয়েছে হুয়াওয়ে। সম্প্রতি তারা তাদের প্রথম ৫জি ফোন মেট এক্স ও উন্মোচন করে।

যদিও এখনো কোন দেশ পুরোপুরিভাবে ৫ জি চালু করতে পারে নি। তবে আশা করা যায় এই বছরের মাঝেই বেশ কিছু দেশে পুরোপুরিভাবে ৫জি চালু হবে।

৫জি প্রযুক্তিতে কোন স্মার্টফোনকে যুক্ত করতে হলে তার মডেম চিপটিও ৫জি ক্যাপাবল হতে হবে। ইতিমধ্যে কোয়ালকম তাদের এক্স৫০ নেটওয়ার্কিং চিপ এবং হুয়াওয়ে তাদের ব্যালং ৫০০০ নেটওয়ার্কিং চিপ বাজারে এনেছে। হুয়াওয়ের নিজস্ব ব্যালং ৫০০০ চিপটি ৫জি প্রযুক্তিতে যুক্ত হতে সক্ষম। এটি স্ট্যান্ড এলোন এবং নন-স্ট্যান্ড এলোন দুই ধরনের ৫ জি নেটয়ার্ক ই সাপোর্ট করে।

অ্যাপল নিজেরা তাদের আইফোনের জন্য চিপসেট তৈরী করলেও ৫জি প্রযুক্তি নিয়ে খুব বেশি এগোতে পারে নি। তাই শোনা যাচ্ছে তারা হুয়াওয়ের কাছ থেকে পরবর্তী আইফোনগুলোর জন্য ৫জি চিপ কিনতে পারে। ব্যাপারটা নিয়ে এখনো অ্যাপল কিংবা হুয়াওয়ে এখনো কিছু বলে নি।

এর আগে অ্যাপলকে নেটওয়ার্কিং চিপ প্রোভাইড করতো ইন্টেল। কিন্তু এক গোপন সূত্রে জানা গেছে কিছু জটিলতার কারণে অ্যাপল য়ার ইন্টেলের উপর ভরসা করতে পারছে না। তাই হয়তো তারা হুয়াওয়ের দ্বারস্থ হতে যাচ্ছে। অন্যদিকে চাইনিজ সরকারের সাথে হুয়াওয়ের ঘনিষ্ঠতা থাকায় যুক্তরাষ্ট্র হুয়াওয়েকে তাদের দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি মনে করে আসছে। তাই ব্যাপারটা আসলে কতদূর এগোবে এখনো বলা যায় না।

[★★] আপনিও একটি টেকবাজ একাউন্ট খুলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি নিয়ে পোস্ট করুন! হয়ে উঠুন একজন দুর্দান্ত টেকবাজ! এখানে ক্লিক করে নতুন একাউন্ট তৈরি করুন।

ফেসবুকে যুক্ত হোন!

সর্বশেষ প্রযুক্তি বিষয়ক তথ্য পেতে ইমেইলে ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন!

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

আমাদের প্রশ্ন করুন!